পুজোর ভোগে খিচুরি হবে না তা কি হয়?

0
395

নিজস্ব প্রতিবেদন (দেবস্মিতা ঘোষ)২২.১০.২০২০

একশো একত্রিশ বছর আগে শুরু হয়েছিল পটুয়া তলা ব্যানার্জি পারে পুজো বেণী মাধব বন্দ্যোপাধ্যায় হাত ধরে।তবে পুজোর বনেদিয়ানা এখনো হাজির।এই নিয়ে সপ্তম প্রজন্ম এখন পুজো করছে।এখনো ১৩১ বছরের পুরনো শ্বেত পাথরের থালা বাটি দে আমাকে অন্য ভোগ দেওয়া হয় । সপ্তমীর দিনে মাকে দেওয়া হয় গীত ভাত খিচুড়ি, পাঁচ রকম ভাজা, পায়েস চাটনি।আমরা এখন শিখবো এই বাড়ির বিশেষ ভোগের খিচুড়ি রেসিপি।

উপকরণ:-

১ কাপ গোবিন্দভোগ চাল

১ কাপ মুগের ডাল

১০ টা কাজু

১০ টা কিসমিস

১০ টা আমন্ড বাদাম

৩ টেবিল চামচ সর্ষের তেল

২ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো

৪ টে কাঁচালঙ্কা চেড়া

১০০ গ্রাম কুমড়ো ডুমো করে কাটা

১০০ গ্রাম আলু ডুমো করে কাটা

১০০ গ্রাম বিন্স ডুমো করে কাটা

১০০ গ্রাম গাজর ডুমো করে কাটা

২ টো টমেটো লম্বা করে কাটা

৪টে শুকনো লঙ্কা

৪টে তেজপাতা

১ চা চামচ গোটা জিরে

২ চা চামচ জিরে গুঁড়ো

২ চা চামচ আদা বাটা

১ চা চামচ লঙ্কা গুঁড়ো

৬টা এলাচ

১” দারচিনি

৪ টে লবঙ্গ

২ চা চামচ ঘি

স্বাদ মত নুন ও চিনি

পরিমাণ অনুযায়ী গরম জল

২ টেবিল চামচ নারকেল কোরা

প্রণালী:-

কড়াই এ সর্ষের তেল গরম করে তাতে তেজপাতা,শুকনো লঙ্কা,জিরে, এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ, ফোড়ন দিয়ে নারকেল কোরাটা মিশিয়ে ভালো করে ভাজতে হবে ।তারপর চারটে কাঁচালঙ্কা দিতে হবে। এবার একে একে গাজর,কুমড়ো,আলু, বিনস্ দিয়ে একটু সাঁতলে টমেটো দিয়ে দুমিনিট কষাতে হবে।

 এদিকে ডালটা শুকনো খোলায় ভেজে ধুয়ে নিতে হবে আর চালটা ধুয়ে একটু ঘি মাখিয়ে রাখতে হবে।২ মিনিট বাদে ডালটা তরকারির মধ্যে দিয়ে ২ মিনিট ভেজে চালটা এরসঙ্গে মিশিয়ে ২ মিনিট ভাজতে হবে।এবার হলুদ,জিরে,নুন, লঙ্কার গুঁড়ো,আদাবাটা,ভালোভাবে মিশিয়ে 5 মিনিট কষানোর পর দেড় মগ জল মেশাতে হবে।অন্য গ্যাসে একটা কড়াই বসিয়ে এক চামচ ঘি গরম করে তাতে ড্রাই ফ্রুটসগুলো ভেজে নিতে হবে আর সাথে চাল-ডাল নাড়তে হবে। জলটা শুকিয়ে এলে এবং চাল ডাল সিদ্ধ হয়ে এলে চিনি ও কিছুটা ড্রাই ফ্রুটস এর সাথে মেশাতে হবে । তার পর ঘিটা মেশাতে হবে।সবশেষে গ্যাস থেকে খিচুরী টা নামিয়ে একটা সুন্দর পাত্রে সাজিয়ে তার ওপর থেকে ড্রাই ফ্রুটসগুলো ছড়িয়ে দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here