নিখোঁজ শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার

0
25

নিজস্ব সংবাদদাতা , ১১/০২/২০২০

দশ দিন পর উদ্ধার হল নিখোঁজ শিশুর মৃতদেহ । ঘটনাটি ঘটেছে রাণীগঞ্জ থানার পাঞ্জাবি মোড় ফাঁড়ী এলাকায় । গত ৩০ শে জানুয়ারি মঙ্গলপুর স্কুল পাড়ার বাসিন্দা দিলীপ তাঁতির আড়াই বছরের ছেলে সঞ্জয় তাঁতি অদ্ভুত ভাবে নিখোঁজ হয়ে যায় । ৩১ শে জানুয়ারি দিলীপ তাঁতি পাঞ্জাবি মোড় ফাঁড়ীতে সঞ্জয়ের নিখোঁজের অভিযোগ জানায় । পুলিশ স্থানীয় ফাগু ভুইঁয়াকে গ্রেপ্তার করে । তাকে জিজ্ঞাসাবাদের পর সঞ্জয়ের রক্তমাখা জামা পাওয়া যায় । পুলিশ কুকুর ও ড্রোন এনে জঙ্গলে তল্লাশি চালিয়েও কোন সূত্র পায়নি । অন্যদিকে ধৃত ফাগু কোন কিছু না বলাতে পুলিশ আদালত থেকে তাকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেয় । পরে আরো পাঁচ দিনের রিমান্ড পায় । দশদিনের মাথায় গ্রামবাসীদের মারফৎ খবর পেয়ে মঙ্গলপুর জঙ্গলের প্রায় ৫০০ মিটার দূরে পরিত্যক্ত খাদানের প্রায় দুশো ফুট নীচ থেকে সঞ্জয়ের পচা মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ । হাসপাতালে সঞ্জয়ের বাবা দিলীপ তাঁতি জানায় সরস্বতী পূজোর পর দিন সিজানোর ভাত খেয়ে বাচ্চারা খেলছিল সেই সময় ফাগু বিস্কুট খাওবার লোভ দেখিয়ে তাকে নিয়ে যায়, সন্ধা হয়ে গেলে ছেলে ফিরে না আসাতে ফাগুকে ধরে গ্রামবাসীরা এবং তার বিরুদ্ধে অপহরণের মামলা করা হয় । সকালে এলাকার মহিলা জদুরী বাউড়ী ছাগল চড়াতে গিয়ে জঙ্গল থেকে অনেক দূরে খাদানের মধ্যে কিছু পড়ে থাকতে দেখে গ্রামবাসীদের জানায় । তারা পুলিশকে খবর দেয়, পুলিশ এসে ২০০ ফুট নীচ থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায় পচা মৃতদেহটি । দিলীপের এক মেয়ে এবং চার ছেলের মধ্যে ছোট ছেলে সঞ্জয় । ময়নাতদন্তের পর পুলিশ জানায় সঞ্জয়ের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি । সম্বভত নীচে নেমে উঠতে পারেনি এবং না খেতে পেয়ে ঠান্ডায় মারা গিয়েছে । ইসিএলের পুরানো খাদানে মাটি কেটে সিড়ীর মতো করা থাকতো সেই সিড়ী ধরে নেমে গিয়েছিল তারপর আর উঠতে পারেনি । ফাগুর বিরুদ্ধে অপহরণের মামলা চলছিল । তার দশদিনের রিমান্ডের শেষ দিন ছিল, সঞ্জয়ের মৃতদেহ উদ্ধারের পর তার বিরুদ্ধে খুনের মামলা চালানো হবে বলে জানায় পুলিশ ।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here