নাগরিকত্ব আইন নিয়ে কি বললেন অমর্ত্য সেন?

0
67

নিজস্ব সাংবাদদাতা(অর্পিতা ব্যানার্জী), ৯/১/২০২০

JNU কাণ্ড নিয়ে সরব অমর্ত্য সেন। জেএনইউয়ের ঘটনায় তিনি ‘হতভম্ব’। পুলিশকে জানাতে দেরি করা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ।ধর্মের ভিত্তিতে ভেদাভেদ করা যাবে না। সে কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে অমর্ত্য সেন বলেন, দেশের আইনে ধর্মীয় ভেদাভেদ করা যায় না।সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বাতিল করার উচিত সুপ্রিম কোর্টের। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বহিরাগতদের হামলা রুখতে ব্যর্থ। পুলিশও কাউকে ধরতে পারেনি। অথচ যাঁরা মুখোশধারীদের হাতে মার খেলেন, তাঁদের বিরুদ্ধেই এফআইআর করেছে পুলিস! বড় বেশি চোখে পড়ছে এই বিচারহীনতা। জেএনইউ কাণ্ডে উপাচর্য জগদীশ কুমারকের ভূমিকা নিয়ে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে পড়ুয়ারা। এই ঘটনায় এবিভিপি-র সঙ্গে তাঁর যোগসাজোশ রয়েছে বলে অভিযোগ তোলা হয়।একই সঙ্গে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ স্বীকার করেন, প্রতিবেশী দেশে নিপীড়নের শিকার হওয়া হিন্দুদের ও মানুষের দুঃখ-দুর্দশার বিষয় সহানুভূতির সঙ্গেই দেখা প্রয়োজন।

আরও পড়ুন…দীপিকার নামের বানান ভুল লেখায় সমালোচনার মুখে পাক সেনা
মঙ্গলবার জগদীশ কুমার বলেন, জেএনইউ ক্যাম্পাস তর্ক-বিতর্কের জন্য পরিচিত। এখানে সবকিছুই মীমাংসা হয়ে বিতর্ক আলোচনার মাধ্যমে। হিংসা কোনও সমাধানই নয়। ক্যাম্পাসে শান্তি ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে সব চেষ্টা করা হবে।

রেজিস্ট্রেশন শুরু হয়েছে। উইন্টার সেশনের জন্য নাম নথিভূক্ত করতে পারেন পড়ুয়ারা। যারা রেজিস্ট্রেশনের বিপক্ষে তারা রেজিস্ট্রেশন রুমে ভাঙচুর করেছে। আমার ওপরে হামলা চালিয়েছিল গত ১৪ ডিসেম্বর। পুরনো সবকিছু পেছনে ফেলে এসো নতুন করে শুরু করা যাক। সব পড়ুয়াদেরই বলছি, জেএনইউ নিরাপদ জায়গা। ক্যাম্পাসে ফিরে এসো।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here