প্রকাশ্যে কেন হঠাৎ হু হু করে কেঁদে ফেললেন আলিয়া?

0
31

নিজস্ব সাংবাদদাতা(সায়ন্তনী বড়াল), ৪/১২/১৯

মাত্র ১২ বছর বয়স থেকে মানসিক টানাপোড়েনে ভুগছেন। মনের ব্যামো যেন কোনও কিছুতেই কাটত না তাঁর। মানসিক টানাপোড়েন এমন পর্যায়ে পৌছয় যে, এক সময় তিনি আত্মহত্যা করার চিন্তাভাবনা শুরু করেন। সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে এমনই জানান শাহিন ভাট।বরখা দত্তের একটি অনুষ্ঠানে সম্প্রতি হাজির হন মহেশ ভাটের দুই মেয়ে শাহিন ভাট এবং আলিয়া ভাট। ওই অনুষ্ঠানে শাহিনের লেখা বই ‘আই হ্যাভ নেভার বিন আনহ্যাপিয়ার’ নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। যে প্রসঙ্গে আলিয়া
বলেন, দিদি শাহিন ভাটের ওই বই পড়েই তিনি তাঁর মনের অবস্থা জানতে পারেন। কত ছোট বয়স থেকে তাঁর দিদি ওইভাবে প্রতিদিন মানসিক টানাপোড়েনে ভুগতে শুরু করেন, তা জানতে পারেন বই পড়ে। এর আগে কখনও তিনি এ বিষয়ে কিছু জানতে পারেননি, দিদিকে সঙ্গ দিতে পারেননি।

আরও পড়ুন…জানেন কি, নিজের বায়োপিকে অভিনয়ের জন্য কাকে পছন্দ সৌরভ গাঙ্গুলির?

সেই আত্মদহনেই এবার পুড়তে শুরু করেছেন বলেও জানান আলিয়া। দিদির এমন কী কষ্ট হয় যে তার জন্য আত্মহত্যা করবেন বলেও ভাবতে শুরু করেন। এসব মনে করেই প্রকাশ্যে হু হু করে কেঁদে ফেলেন আলিয়া। ওই অনুষ্ঠানে আলিয়াকে সান্তনা দিয়েও কোনওভাবে শান্ত করতে পারেননি তাঁর দিদি শাহিন ভাট।

আলিয়া বলেন, দিদি শাহিনের কষ্ট তিনি কখনও বুঝতে পারেননি। শাহিনের বই পড়েই এ বিষয়ে তিনি জানতে পারেন। কষ্টের দিনগুলিতে দিদি শাহিনের কষ্ট তিনি কোনওভাবেই বুঝতে পারেননি বলেও আফশোষ করতে শুরু করেন আলিয়া।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here