শরীরে গাটে গাটে ব্যাথা? সহজেই কমান ব্যথা থেকে…

0
134

সংবাদটিভি ওয়েবপেজ

সামান্য জ্বরেই গা হাত পায়ের প্রচণ্ড ব্যথায় ভোগেন অনেকে। একটা বসে কাজ করতে করতেও ব্যাথা হয়ে যায় ঘাড় পিঠে। নিত্য ব্যস্ত জীবনে কেউ আর নিজেকে সময় দিয়ে উঠতে পারেন না। অফিস থেকে বাড়ি আবার পরের দিন বাড়ি থেকে অফিস। এই ছক বাঁধা নিয়মে আটকে যায় নিজেকে সুস্থ রাখার সকল ইচ্ছে। সঠিক পরিমান শরীরচর্চাও করে ওঠা হয় না। তার জেরেই ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে গা,হাত,পায়ের ব্যথা। একনজরে জেনে নিন কাজের মধ্যেও কিভাবে ঘাড়, কোমড় আর পিঠের ব্যথা কমাবেন…
১) অনেকেই বেশিরভাগ ভুল ভঙ্গিমায় বসে বা দাঁড়ায়। যার ফলে ঘাড়ে বা পিঠে ব্যথা হয়। তাই বসা, দাঁড়ানোর বা শোওয়ার সময় তার ভঙ্গি সতর্ক ভাবে খেয়াল রাখুন।

২) শোওয়ার সময় বালিশের উচ্চতা সঠিক না হলে বা বালিশ খুব শক্ত বা খুব নরম হলে ঘাড়ে, পিঠে ব্যথা হতে পারে। বালিশের উচ্চতা এমন হওয়া উচিত, যাতে কাঁধ আর ঘাড় না বেঁকিয়ে পিঠ মোটামুটি সোজা বা সমান্তরাল রেখে শোওয়া যায়।

৩) যদি দীর্ঘ ক্ষণ আপনাকে অফিসে বসে কাজ করতে হয়, সে ক্ষেত্রে মাঝে মধ্যে ২-৩ মিনিটের জন্য ‘ব্রেক’ নিয়ে একটু হেঁটে আসুন। চিকিত্সকরা জানাচ্ছেন, ২ ঘণ্টা একটানা বসে থাকলে শরীরের ভাল কোলেস্টেরলের মাত্রা এক ধাক্কায় প্রায় ২০ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়। সেই সঙ্গে শরীরের ফ্যাট ঝরানোর উত্সেচকের ক্ষরণ প্রায় ৯০ শতাংশ কমে যায়। ৪ ঘণ্টা একটানা বসে থাকলে রক্তে ইনসুলিনের মাত্রা কমে যায়। তাই ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকলে শুধু ঘাড়ে, কোমড়ে বা পিঠে ব্যথাই বাড়বে না, বাড়বে ডায়াবেটিস বা হার্টের সমস্যাও।

আরও পড়ুন…দাঁত ব্রাশ করার সময় মাড়ি থেকে রক্ত পড়ে?

৪) ফ্রোজেন শোল্ডার বা স্টিফ জয়েন্টের সমস্যায় সার্ভিক্যাল কলার বা ব্যাক ব্রেস পরলে সাময়িক আরাম পাওয়া যায় ঠিকই, তবে এই অভ্যাস দীর্ঘ মেয়াদী হলেই বিপদ। কারণ, চিকিত্সকদের মতে, তেমন কোনও চোট, আঘাত না থাকলে সার্ভিক্যাল কলার বা ব্যাক ব্রেস-এর উপর নির্ভর না করাই ভাল। এর থেকে ফিজিওথেরাপিস্টদের পরামর্শ অনুযায়ী নিয়ম
মেনে কসরত করাই ভাল।

৩) বেড়াতে যাওয়ার সময় বা কাজে বেরনোর আগে আমরা অনেকেই পিঠে ভারী ব্যাকপ্যাক নিয়ে থাকি। বেশি ওজনের ব্যাগ দীর্ঘ ক্ষণ ধরে বইতে হলে দু’ কাঁধে সমান ভার না পড়লে কাঁধে বা পিঠে ব্যথা হয়। তাই ব্যাগ এমন ভাবেই নিতে হবে যাতে দু’কাঁধে সমান চাপ পড়ে।
এছাড়া অবশ্যই যেকোনো সমস্যায় চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। সুস্থ থাকুন। ভালো থাকুন।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here