চোট পেয়ে বিশ্বকাপ থেকে চিটকে গেলেন ‘গব্বর’

0
14

চোট পেয়ে বিশ্বকাপ থেকে চিটকে গেলেন ‘গব্বর’

 নিজস্ব সাংবাদদাতা(সায়ন্তনী বড়াল), ১১/৬/১৯

ভারতীয় শিবিরে দুঃসংবাদ! চোটের জন্য অন্তত তিন সপ্তাহ মাঠের বাইরে চলে গেলেন শিখর ধাওয়ান৷ রবিবার কেনিংটন ওভালে সেঞ্চুরি করার পথে বাঁ-হাতের বুড়ো আঙুলে চোট পেয়েছিলেন টিম ইন্ডিয়ার বাঁ-হাতি ওপেনার৷ চিকিৎসকরা তাঁকে অন্তত ২১ দিন বিশ্রাম দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন৷

আপাতত বৃহস্পতিবার ট্রেন্ট ব্রিজে নিউজিল্যান্ড ও রবিবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মাঠে নামতে পারছে না ‘গব্বর’৷ শুধু তাই নয়, ধাওয়ানের বিশ্বকাপে আর মাঠে নামা নিয়েও সংশয় রয়েছে৷ কারণ বাঁ-হাতের বুড়ো আঙুলে হেয়ারলাইন ফ্র্যাকচার হয়েছে বলে মনে করা হয়েছে৷ আপাতত তাঁকে তিন সপ্তাহ বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে৷

রবিবার ওভালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচের শুরুতেই কুল্টার নাইলের বলে বাঁ-হাতের বুড়ো আঙুলে চোট পেয়েছিলেন ধাওয়ান৷ কিন্তু হাতের তীব্র যন্ত্রণা নিয়েও দুরন্ত সেঞ্চুরি করেন তিনি৷ ১০৯ বলে ১১৭ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন বিরাট কোহলির দলের ‘গব্বর’৷ হাতে যন্ত্রণা নিয়েই ১৬টি বাউন্ডারি হাঁকিয়েছিলেন তিনি৷ এই হাত নিয়েই ৩৭ ওভার ব্যাটিং করে ভারতীয় ইনিংসকে শিখর তুলে দেন ধাওয়ান৷ শেষ পর্যন্ত মিচেল স্টার্কের বলে ডিপ মিড-উইকেটে ক্যাচ-আউট হয়ে ড্রেসিংরুমে ফেরেন তিনি৷

যন্ত্রণা নিয়ে ব্যাটিং করলেও অজিদের বিরুদ্ধে ফিল্ডিং করতে নামেননি ধাওয়ান৷ তাঁর পরিবর্তে অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে পুরো ৫০ ওভার ফিল্ডিং করেন রবীন্দ্র জাদেজা৷ অস্ট্রেলিয়াকে ৩৬ রানে হারিয়ে বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পায় ভারত৷ সাউদাম্পটনে প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে মাত্র ৮ রান ড্রেসিংরুমে ফিরলেও দ্বিতীয় ম্যাচে গব্বরের বল্লা চলতে শুরু করে৷ বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচেই ওয়ান ডে কেরিয়ারে ১৭তম সেঞ্চুরিপূর্ণ করেন ধাওয়ান৷

প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করে দলকে জেতাতে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন রোহিত শর্মা৷ আর দ্বিতীয় ম্যাচ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করে অজি বধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন৷ ধাওয়ান৷ শুধু তাই নয়, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওপেনিং জুটিতে ১২৭ রান যোগ করে নতুন রেকর্ড গড়েন ধাওয়ান ও রোহিত৷ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ান ডে ক্রিকেটে সব থেকে সফল ব্যাটিং জুটি এখন রোহিত-ধাওয়ানই৷ তাঁরা টপকে যান ওয়েস্ট ইন্ডিজের গর্ডন গ্রিনিজ ও ডেসমন্ড হেইনস জুটিকে৷

ওভালের শতরানের পার্টনারশিপের পর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে জুটিতে রোহিত-ধাওয়ানের সংগ্রহ ১২৭৩ রান৷ অজিদের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে ক্রিকেটে এত রান করতে পারেনি আর কোনও ব্যাটিং জুটিই৷ এতদিন এই রেকর্ড ছিল গ্রিনিজ-হেইনসের৷ তাঁরা অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ১১৫২ রান করেছিলেন৷ এছাড়া রোহিত-ধাওয়ান ওপেনিং জুটিতে ১৬তম শতারানের পার্টনারশিপ গড়ে৷ সচিন-সৌরভের পর এই নিরিখে তাঁরা যুগ্মভাবে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন৷ সচিন ও সৌরভ ওপেন করে ২১টি শতারানের পার্টনারশিপ গড়েছেন৷ ম্যাথু হেডেন ও অ্যাডাম গিলক্রিস্টও ওপেনিং জুটিতে ১৬বার একশোর বেশি রান তুলেছে৷

বৃহস্পতিবার ট্রেন্ট ব্রিজে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সম্ভবত ধাওয়ানের পরিবর্তে দলে ঢুকতে পারেন বিজয়শংকর৷ আর ওপেনিং জুটিতে রোহিত শর্মার পার্টনার হতে পারেন লোকেশ রাহুল৷ রবিবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারত-পাক মহারণেও ধাওয়ানকে পাবে না কোহলির অ্যান্ড কো৷ সুতরাং আইসিসি টুর্নামেন্টে সফল এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যানকে না-পাওয়া নিঃসন্দেহে শাস্ত্রী-কোহলির জুটির কাছে অত্যন্ত খারাপ খবর৷ এখনও পর্যন্ত দেশের হয়ে ১৩০টি ওয়ান ডে ম্যাচে ১৭টি সেঞ্চুরি এবং ২৭টি হাফসেঞ্চুরি-সহ মোট ৫৪৮০ রান করেছেন ধাওয়ান৷ গড় ৪৪৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here