বিদ্যুত দফতরে ভাঙচুর

0
81

নিজস্ব প্রতিবেদন (দেবস্মিতা ঘোষ)০৭.০৮.২০২০:টানা লোডশেডিংয়ের কারণে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকায় মানিকচক বিদ্যুৎ অফিসে ব্যাপক ভাঙচুর বিক্ষুব্ধ জনতার । বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে মালদার মানিকচক ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় লোডশেডিং ছিল কয়েক ঘণ্টা।ফলে বেশ কিছু গ্রামের মানুষ ব্যাপক অসুবিধার মুখে পড়ে মানুষ, পড়ুয়া থেকে অসুস্থ ব্যক্তিরা।
গত বৃহস্পতিবার রাত দশটা নাগাদ বিদ্যুৎ অফিস সংলগ্ন এলাকার কিছু লোকজন অফিসে এসে বিক্ষোভ দেখায় বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক করার দাবিতে। ঘটনার বিক্ষোভের খবর পেয়ে মানিকচক থানার পুলিশ প্রশাসন আসে বিক্ষোভকারীদের বুঝিয়ে সেই সময় পাঠিয়ে বাড়ি মুখি করে দেয়।পুলিশ যেতেই আবার প্রায় ১০০ জন বিক্ষোভকারীরা ঘুরে আসে বিদ্যুৎ অফিসের সাপ্লাই রুমে ঢুকে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। বিদ্যুৎ দপ্তর জরুরী মেশিন ,গাড়ি, আসবাবপত্রের ব্যাপক ভাঙচুর চালায় বিক্ষোভকারীরা। ঘটনার জেরে কোনরকম দপ্তরের কর্মীরা পালিয়ে প্রাণে বাঁচে। তবে কর্মীদেরও শারীরিকভাবে হেনস্থা করা হয় বলে অভিযোগ।
এই বিষয়ে বেশ কিছু কর্মী জানায় জেলার মূল বিদ্যুৎ দপ্তর থেকে মানিকচকের বিদ্যুৎ সংযোগ ব্রেকডাউন ছিল। আমরা বহু চেষ্টা করে স্বাভাবিক করার চালাচ্ছিলাম।আমাদের কাছে খবর আসে ৩৩ হাজার ভোল্ট তারের মধ্যে গাছের ডাল পড়ে রয়েছে তা আমরা ঠিকঠাক করার চেষ্টা করছিলাম।এর মধ্যেই পুলিশ যাওয়ার পর প্রায় ১০০ জন বিক্ষোভকারী ফের অফিসে এসে আমাদেরকে শারীরিক ভাবে হেনস্থা করে।কোনরকম আমরা পালিয়ে বাঁচি।এরপর তারা বিদ্যুৎ অফিসের জরুরী ইলেকট্রিক মেশিন সহ গাড়ি ,গেট ,জানালা বিভিন্ন মূল্যবান সামগ্রী ব্যাপক ভাঙচুর চালায় ।আমরা বিষয়টি পুলিশ প্রশাসনকে জানিয়েছি। রাতের মানিকচক থানার পুলিশ এসেছিল।পুলিশ যাবার পরেই ঘটনা ঘটেছিল। এই ধরনের ভাংচুরের ঘটনা কয়েকবার ঘটেছে । বর্তমানে আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। রাতে আমরা প্রায় সমস্ত এলাকায় বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক করেছি । ঘটনায় মানিকচক থানায় লিখিত ভাবে বিদ্যুৎ অফিস থেকে অভিযোগ করা হয়েছে বিক্ষোভ কারীদের বিরুদ্ধে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here