মর্ত্যে আগমনের পর এই বাড়িতে গয়না পরতে আসেন উমা!

0
1637

পল্লবী সান্যাল : বনেদি বাড়ির দুর্গা পুজোর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে কত ইতিহাস, কত কাহিনী। উত্তর কলকাতায় শতাব্দীপ্রাচীন রাজবাড়ির পুজোগুলির মধ্যে অন্যতম জোড়াসাঁকো অঞ্চলের দাঁ বাড়ির পুজো। শোনা যায়, মর্ত্যে আগমনের পর এই বাড়িতে গয়না পরতে আসেন উমা।

ইতিহাস বলে, দাঁ বাড়ির পুজো শুরু হয়েছি আজ থেকে ১৮০ বছর আগে, ১৮৪০-এ। ২০২০-তে দাঁ বাড়ির পুজোর ১৮১তম বর্ষ। দাঁ বাড়িতে দুর্গা পুজোর প্রচন ঘটান বাড়ির পূর্বপুরুষ বর্ধমানের গকুল চন্দ্র দাঁ. তিনি ছিলেন নিঃসন্তান। ১৮৪০-এ বর্ধমান থেকে কলকাতায় চলে এসেছিলেন তিনি। তারপর তিনি দত্তক নেন হলধর দত্তে চার বছরের পুত্র সন্তান শিবকৃষ্ণ দত্তকে। তারপরই বাড়িতে মা দুর্গার পুজো শুরু করেন তিনি। শোনা যায়, শিবকৃষ্ণ নিজেকে সুন্দর দেখাতে সর্বক্ষণ সোনার গয়না পরে থাকতে পছন্দ করতেন। বাড়িতে দুর্গা পুজো শুরু হওয়ার পর দেবা প্রতিমাকেও সোনার গয়নায় সাজিয়ে তোলার ইচ্ছা জাগে তাঁর। সেই মতো প্যারিস ও জার্মানি থেকে গয়নার সরঞ্জাম নিয়ে এসে দেবীকে পরানো শুরু করেছিলেন।

দাঁ বাড়ির পুজোয় আজও বজায় রয়েছে সাবেকিয়ানা। দেবীর সাজ্জসজ্জার অঙ্গ বলতে ওই বিশেষ গয়নাগুলি। এর সঙ্গে রয়েছে নতুন কিছু গয়নাও। পুজো হয় বৈষ্ণব মতে। তাই বলিদান নিষিদ্ধ। সন্ধি পুজোয় মা দুর্গাকে একমন চালে নৈবেদ্য দেওযার রীতি রয়েছে। যদিও পুজোয় অন্ন ভোগ হয় না। পরিবর্তে ভোগ দেওযা হয় লুচি ও নানা ধরণের মিষ্টি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here