রাজ্য কে হীরক রাজের দেশ বলে আক্রমণ

0
76

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ ফের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়।  ভিডিও বার্তায় রাজভবনে প্রথম বর্ষপূর্তিতে নজিরবিহীন তোপ দাগলেন রাজ্যপাল। এক বছর কার্যকাল তাঁর কাছে স্মরণীয় তো বটেই, যন্ত্রণাদায়কও বললেন ধনকড়। বৃহস্পতিবারই রাজ্যপাল হিসাবে তাঁর এক বছর পূর্ণ হয়েছে। আর সেই নিয়ে ইউটিউবে ভিডিও পোস্ট করে মমতা সরকারকে একাধিক বিষয়ে আক্রমণ করেন তিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন পশ্চিমবঙ্গকে ‘হীরক রাজার দেশ’ বলেও কটাক্ষ করেন ধনকড়। অস্কারজয়ী চিত্র পরিচালক সত্যজিৎ রায়ের আটের দশকের বিখ্যাত ছবি ‘হীরক রাজার দেশে’র সঙ্গে তুলনা টানেন মমতা সরকারের। আর বলেন, ‘প্রকৃত পরিবর্তনের অপেক্ষায় রয়েছেন বাংলার জনতা।’ তিনি আরও বলেছেন, ”হিংসা, দুর্নীতি, গুন্ডাগিরি, পুলিশি রাজ এখন সরকারের অংশ হয়ে উঠেছে। একে আমরা হীরক রাজার দেশ বলব না কেন? আমি নিশ্চিত, সত্যজিৎ রায় কোনওদিন কল্পনাও করেননি, তাঁর কাল্পনিক ছবি একদিন রাজ্যে সত্যি হবে।” তাঁর আরও বিস্ফোরক অভিযোগ, “নারীর সম্মান ও অধিকারের পাইকারি দরে সমঝোতা হয় এ রাজ্যে।” রাজ্যপালের এই মন্তব্যের পালটা সুর চড়িয়েছে শাসকদল তৃণমূল।

রাজ্যের নারী, শিশু ও সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজা  রাজ্যপালের মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করে বলেছেন, “এই অভিযোগের সমর্থনে নিশ্চয়ই তথ্যপ্রমাণ রয়েছে তাঁর কাছে। আর যদি না থাকে তাহলে বলতে হবে আবার একটা মিথ্যা কথা বলছেন তিনি। মুখে বাঙালি আবেগের কথা বলেন আবার বাংলাকে অসম্মান করেন। আমরা রাজ্যে মহিলাদের উপর হওয়া অপরাধ ও হিংসার ঘটনা রুখতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছি। পুলিশ অপরাধীদের দ্রুত ধরপাকড় করছে। নারীপাচারের বহু চক্রের পর্দাফাঁস হয়েছে। আর উনি কিনা মিথ্যা অভিযোগ করছেন। বাংলায় নারীর সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন নিয়ে ওনার কোনও ধারণাই নেই। উনি বাংলার নন বলেই এই কথা বলছেন।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here