হৈ-হট্টগোল সর্বদল বৈঠকে অশান্তি থামল জিলিপি আর পাঁপড়ে

0
127

নিজস্ব প্রতিনিধি, ২৫ জুনঃ রাজ্য-রাজ্যনীতিতে দূর থেকে শাসক-বিরোধী একে-অপরকে আক্রমণ শানাছিলেন। বুধবারই প্রথম কোনও বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর মুখোমুখি হলেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বুঝিয়ে দিলেন যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আহ্বানে সর্বদল বৈঠকে যোগ দিলেও নিজের অবস্থানে অনড় তিনি। রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন বিষয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন। বুধবার সর্বদল বৈঠকে হাজির হয়ে করোনা থেকে আমফান একাধিক ইস্যুতে রাজ্যের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ত্রাণ বিলিতে বিজেপি নেতা-কর্মীদের বাধা দেওয়া হচ্ছে, ফের এই অভিযোগ তোলেন তিনি। পালটা বিজেপি সাংসদকে নিশানা করেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়-সহ অনেকেই।

দু’তরফের আক্রমণে কার্যত সরগরম হয়ে ওঠে নবান্নের সভাঘর। পরবর্তীতে ফের একই পরিস্থিতি তৈরি হয় বাম পরিষদীয় দলের নেতা আমফানের ত্রাণে স্বজনপোষণ-সহ একাধিক অভিযোগ করতেই। নিয়োগ সংক্রান্ত একাধিক অভিযোগ করেন তিনি। জবাব দেন শাসকদলের মন্ত্রীরা। পালটা তোপ দাগেন সুজন চক্রবর্তীও। সব মিলিয়ে সবর্দল বৈঠকেও জারি ছিল শাসক-বিরোধী দ্বন্দ্ব। তবে শুরুতে অশান্তি যাই হোক না কেন, বৈঠকের শেষ হয়েছে মিষ্টি মুখেই। সর্বদল বৈঠক শেষে জিলিপি, পাঁপড় আর চা পর্ব সেরে সভাস্থল ছাড়েন শাসক-বিরোধী উভয়েই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here