কার্গিল বিজয় দিবসে পাকিস্তানের প্রতি কড়া বার্তা, কোভিড নিয়ে সচেতনতা

0
176

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ করোনা পরিস্থিতিতে অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারতের অবস্থা ভালো। কিন্তু করোনা ভাইরাস এখনও ভয়ঙ্কর ফর্মে। সাধারণ মানুষকে খুব সতর্ক থাকতে হবে। মন কি বাত অনুষ্ঠানে দেশবাসীর প্রতি এমনই বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এদিন তিনি বলেন দেশে মৃত্যুর হার কমছে, তা একদিকে আশ্বস্ত হওয়ার মত খবর। কিন্তু রেকর্ড হারে সংক্রমণও ছড়াচ্ছে। এক্ষেত্রে নিজেদের সাবধানতা নিজেদেরই হাতে। এদিন প্রধানমন্ত্রী বলেন এখনও মারণ রোগ করোনা। তাই সুস্থ থাকা জরুরি। জনসমক্ষে বা প্রকাশ্যে মাস্ক না পরার আগে সেই সব মানুষগুলির কথা ভাবা দরকার, যারা সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়ে যাচ্ছে। ‘মন কি বাত’  অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বললেন, “গত কয়েকমাসে যেভাবে আপনারা লড়াই করেছেন, তা অনেক বিশেষজ্ঞদের বহু আশঙ্কাকে ভুল প্রমাণ করেছে। আজ আমাদের দেশে সুস্থতার হার অন্য বহু দেশের তুলনায় অনেক বেশি। আর মৃত্যুহারও অন্য অনেক দেশের তুলনায় কম। আমরা লক্ষ লক্ষ মানুষের প্রাণ বাঁচাতে পেরেছি। আমাদের সবসময় ২ গজ দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা, হাত ধোয়ার মতো কাজগুলি অভ্যাসে পরিণত করতে হবে।” প্রধানমন্ত্রী বলছেন,”অনেক সময় আমাদের মাস্ক পরতে অসুবিধা হয়। আমরা কারও সঙ্গে কথা বলার সময় মাস্ক খুলে ফেলি। যখন সবচেয়ে বেশি দরকার তখনই আমাদের মুখে মাস্ক থাকে না। আপনাদের কাছে অনুরোধ, যখন মাস্ক পরে থাকতে অসুবিধা হবে, দয়া করে একবার আমাদের চিকিৎসকদের কথা ভাববেন। কীভাবে ঘণ্টার পর ঘণ্টা মাস্ক, PPE পরে কাজ করতে হয়ে করোনা যোদ্ধাদের, সেই কথা মনে করবেন।”

প্রধানমন্ত্রী বলছেন, সতর্ক থাকার পাশাপাশি আমাদের ধীরে ধীরে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডও শুরু করতে হবে। মন কি বাতে তিনি বললেন, “একদিকে আমাদের পুরো সতর্কতার সঙ্গে করোনার বিরুদ্ধে লড়তে হবে। অন্যদিকে আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্যও শুরু করতে হবে। সঠিক মানসিকতা সব সমস্যার সমাধান করতে সাহায্য করছে। আমাদের এই আশাব্যঞ্জক মানসিকতাই আগামী দিনে এই লড়াইয়ে জিততে সাহায্য করবে।” প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন কি বাত অনুষ্ঠানে এদিন উঠে আসে কার্গিল যুদ্ধের প্রসঙ্গ। তিনি বলেন ২১ বছর আগে দেশের সেনা কার্গিল যুদ্ধে জয় লাভ করেছিল। তারপর থেকেই ভারত সব প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে চায়। কিন্তু কিছু দেশ নিজের স্বরূপ দেখাতে ব্যস্ত। তিনি বলেন, ‘ওই সময়ে ভারতের তরফে পাকিস্তানের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে তোলার বিষয়ে প্রচুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু, দুর্বলের যেরকম স্বভাব কোনও কারণ ছাড়াই সবার সঙ্গে শত্রুতা করে ওরাও তেমনি করে ছিল। আসলে এভাবে ভারতীয় ভূখণ্ড দখল করার পরিকল্পনা নিয়েছিল পাকিস্তান। সেসময় ওদের দেশে যে গন্ডগোল চলছিল তার থেকে চোখ ঘোরাতেই ভারতের দিকে তাকানোর দুঃসাহস দেখিয়েছিল।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here