রাতে ভিড় কমাতে দিনে দর্শনার্থী টানার পরিকল্পনা!

0
421

পল্লবী সান্যাল : রাতের ভিড় নিয়ন্ত্রণে রাখতে দিনে দর্শনার্থীদের মণ্ডপ মুখো করার পরিকল্পনা চলছে। একেই এবছরটা আর পাঁচটা বছরের থেকে ব্যতিক্রমী। তাই করোনা পরিস্থিতিতে দিনেও যদি রাতের মতো প্যান্ডেল হপিং হয় তাতে সকলের মঙ্গল হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। দিনে দর্শনার্থী টানতে পুজো উদ্যোক্তারও চাইছেন আলোর রোশনাই কম করতে। এতে নিয়ম মেনে প্রতিমা দর্শন সহজ হবে। যদিও পুলিশকর্তারা মনে করছেন, দিনের চেয়ে সন্ধ্যার পর থেকেই ভিড় বেশি হবে।

ইতিমধ্যেই পুজোর পরিকল্পনা সরে ফেলেছে রাজ্য।কীভাবে পুজো করতে হবে তা নিয়ে পুজো কমিটিগুলির জন্য জারি করা হয়েছে বেশ কিছু নির্দেশিকা। যেমন করোনা মোকাবিলায় তিনদিক খোলা প্যান্ডেলের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে পুজো কমিটিগুলিকে। সেই মতো পরিদর্শনও শুরু করে দিয়েছে পুলিশ। খতিয়ে দেখছে পুজোর প্রস্তুতি।  দিনে রাতে মানুষের সুরক্ষার্থে ডিউটিও দেবেন তারা। যেভাবে কলকাতা পুলিশের অন্দরে করোনার বাড় বাড়ন্ত তাতে  সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে পুলিশকর্মীদের কীভাবে ডিউটি দেওয়া যায়, তা নিয়ে চিন্তা-ভাবনা শুরু করেছে লালবাজার।

সাম্প্রতিককালে চতুর্থী থেকেই শুরু হয়ে যায় প্যান্ডেল হপিং। তার ও পর এবছর তৃতীয়া থেকেই দেবী দর্শন করা যাবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সব দিক ভেব চিন্তেডিউটি ভাগ করে দেওয়া হচ্ছে পুলিশ কর্মীদের। এত দিন মূলত দু’টি ভাগে ভাগ করে পুলিশ মোতায়েন করা হত। বিকেল তিনটের পর থেকে মধ্যে রাত পর্যন্ত একটি বাহিনী। রাত ৮-৯টা পর থেকে ভোর পর্যন্ত ডিউটি করত দ্বিতীয় বাহিনী। সকালে অল্প সংখ্যক পুলিশের ডিউটি থাকত মণ্ডপে। করোনা পরিস্থিতিতে তৃতীয়া থেকেই যেহেতু প্যান্ডেল হপিংয়র অনুমতি রয়েছে চলতি বছরকে টানা ৯ দিন ডিউটি করতে হবে পুলিশকর্মীদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here