শোক প্রকাশ রাজনৈতিক মহলে

0
94

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পার্টিতে তিনি অনেকেরই প্রিয় ‘ছোড়দা’ ছিলেন। শোনা যায়, তাঁর ডাক নাম ছিল ‘খোকন’, আর তাঁর পিসতুতো দাদার নাম একই ছিল। দুই খোকন একই বাড়িতে থাকলে,ডাকের সমস্যা হত, সেই থেকে সোমেন মিত্রের নাম ‘ছোড়দা’। আর পার্টির অন্দরেও এই ডাকে পরিচিতি পেতে শুরু করেন তিনি। সেই থেকেই বাংলার রাজনীতিতে তিনি ছোড়দা নামে পরিচিত। এহেন সোমেন মিত্রের জীবনাবসানে এককালের সহযোদ্ধারাও শোকে মুহ্যমান।

‘কংগ্রেসের সভাপতি তথা সাংসদ সোমেন মিত্রর জীবনা বসানের খবরে আমি শোকাহত। তাঁর পরিবার ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা জানাই।’ এই ভাষাতেই এদিন টুইট বার্তার শোক প্রকাশ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘কংগ্রেসের সভাপতি তথা সাংসদ সোমেন মিত্রর জীবনা বসানের খবরে আমি শোকাহত। তাঁর পরিবার ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা জানাই।’ এই ভাষাতেই এদিন টুইট বার্তার শোক প্রকাশ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এককালে কংগ্রেসী রাজনীতিতে সোমেন মিত্রের সঙ্গে বহু সময়ের সাক্ষী মুকুল রায়। মুকুল রায় এদি এই শোকবার্তা শুনেও একটি টুইট করেন, সেখানে তিনি লেখেন, ‘ সোমেন মিত্রের মৃত্যু সংবাদ শুনে আমি গভীরভাবে মর্মাহত। বাম বিরোধী লড়াইয়ের একটি নামী ব্যক্তিত্ব ছিলেন তিনি। সোমেন দাকে মিস করব। তাঁর স্মৃতি থেকে যাবে। তাঁর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই।

‘এদিকে, পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপালের তরফেও উঠে আসে শোকবার্তা । রাজ্যপাল এদিন জানান, বাংলা চিরকালই সোমেন মিত্রের অসামান্য অবদানকে মনে রাখবে। তাঁর আত্মার শান্তিও কামনা করেন রাজ্যপাল। বাংলার চিরাচরিত উচ্চ ঘরানার রাজনীতি ধরে রেখেছিলেন সোমেন মিত্র। এমন ভাষাতেই এদিন সোমেন মিত্রের স্মৃতিচারণা করেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সোমেন মিত্রর পরিবারের প্রতি তিনি এদিন শ্রদ্ধার্ঘ জ্ঞাপন করেন।

এদিন কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী সোমেন মিত্রের সম্পর্কে স্মৃতিচারণায় আবেগঘন হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, ‘ সোমেন মিত্র আর নেই এটা ভাবতে পারছি না। বাংলার একটা অধ্যায় সমাপ্ত হল।’ এভাবেই যুব রাজনীতি থেকে উঠে আসা কংগ্রেসের অন্যতম সৈনিক অধীর চৌধুরী বক্তব্য রাখেন।

‘ভালোবাসা, শ্রদ্ধা’র সঙ্গে সোমেন মিত্রকে স্মরণ করার বার্তা এদিন দিল্লি থেকে দিয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। তিনি সোমেন মিত্রের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।‘এই কঠিন সময়ে সোমেন মিত্রের পরিবার ও বন্ধুদের প্রতি আমার ভালবাসা এবং সমর্থন রয়েছে। আমরা তাঁকে ভালবাসা, স্নেহ এবং শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করব।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here