কেমন ভাবে রাঁধবেন স্বাদের রাজা রাজেশ্বারী?

0
775

নিজস্ব প্রতিনিধি (দেবস্মিতা ঘোষ)০৭.১০.২০২০:

 শেওড়াফুলির রাজবাড়ির পুজো এবছর পা দেবে ২৮৭ তম বর্ষে।  রাজা মনোহর রয় এই পুজো শুরু করেন পেয়ে। যেদদিন দেবী সর্বমঙ্গলা স্বপ্নে আসেন তার পরের দিনই অষ্ট ধাতুর তৈরি একটি মূর্তি পাওয়া যায় একটি পুকুর কাটা হচ্ছিল সেখানে। সর্বমঙ্গলা দুর্গা রূপে পূজিত হন এই বাড়িতে।

 শেওড়াফুলি রাজবাড়ির ভোগের মধ্যে রয়েছে রাজেশ্বরী ।নারকেল এবং খোয়া দিয়ে তৈরি এই রাজেশ্বরী সকলের  মনের মধ্যে স্থান করে রয়েছে রাজরাজেশ্বরীর মতো ।

 উপকরণ :-

নারকেল

 খোয়াক্ষীর

দারচিনির গুঁড়ো

ময়দা

নুন

ঘি

তেল

 এলাচ গুঁড়ো

প্রণালী

 হালকা আছে কড়াই বসিয়ে তাতে নারকেল,খোয়া ক্ষীর ,এলাচ গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে সাত থেকে দশ মিনিট নাড়াচাড়া করতে হবে যতক্ষণ না গুড় থেকে হালকা জল বেরোয়। এই মিশ্রণটিতে যখন গুড় ও নারকেল মিশে যাবে   অথচ হালকা আদ্র থাকবে ততক্ষণ অবধি কড়াইয়ে নাড়াচাড়া করুন। তৈরি হয়ে গেলে তা নামিয়ে রেখে ঠাণ্ডা হতে দিন ।এরপর মাঝারি সাইজের গোল টুকরো করে তার দুই হাত দিয়ে চেপে পাতলা ছোট রুটির মতন আকার দিন ।

এরপর একটা বাটিতে ময়দা নিয়ে তাতে হালকা জল দিয়ে ভালো  করে ফাটান। খেয়াল রাখতে হবে তাতে যাতে কোনো রকম ময়দার ঢেলা  না থাকে। এরপর কড়াইয়ে ঘি এবং তেল সমান পরিমানের দিয়ে গরম হতে দিন।  গরম হয়ে গেলে  ছোট আকারের পিস গুলো নিয়ে তা ময়দার মিশ্রণে ডুবিয়ে ভালো করে ভাজুন যতক্ষণ না সোনালী রঙ হচ্ছে। এগুলো তৈরি হয়ে গেলে ঠাণ্ডা হতে দিন এরপর কড়াইয়ের জল এবং গুড় নিয়ে একটা হালকা গুড়ের শিরা তৈরি করুন যতক্ষণ না সোনালী সুন্দর একটা রং পাচ্ছেন এরপর ভাজা টুকরোগুলো এই সিরাপে ডুবিয়ে দিন এবং হালকা গরম থাকতে থাকতে সার্ভ করুন বা পরিবেশন করুন রাজ রাজেশ্বরী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here