মুখার্জী বাড়ির ছানার কালিয়া

0
468

নিজস্ব প্রতিবেদন (দেবস্মিতা ঘোষ)১৮.১০.২০২০

এই বছর ১৮৮ তম বর্ষে পা দেবে গিরিশ মুখার্জী বাড়ির দুর্গাপুজো ।১৮৩২ সালে হরচন্দ্র মুখার্জি পুজো শুরু করেন। এই বাড়ির পুজোর একটা বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো এখনো সেই পুরোনো কাঠামোতেই তৈরি হন মা দুর্গার মূর্তি।  এই বাড়ির

এক বিশেষ রান্না ছানার কালিয়া মায়ের ভোগে নিবেদিত হয় পুজোর সময়। এখন সেই রেসিপি আপনাদের জানাবো।

উপকরণ

 বাড়িতে তৈরি ছানা

ময়দা

কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো

বেকিং পাউডার

জাইফল গুঁড়ো

 জয়ত্রী গুঁড়ো

 টমেটো

কাজু বাদাম বাটা

আদা বাটা

জিরেগুঁড়ো

ছোট এলাচ

 তেজপাতা

লবঙ্গ

 দারচিনি

 হীং

 হলুদ গুঁড়ো

 গরম মশলা

গোটা কাঁচা লঙ্কা

 সরষের তেল

 চিনি

 নুন

প্রণালী

একটি পাত্রে ছানা, ঘি, ময়দা, কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো, বেকিং পাউডার জায়ফল ও জয়ত্রী গুঁড়ো নিয়ে ভালো করে ছানার সাথে মাখান। পুরোটা ভাল করে মাখা হয়ে গেলে একটি পাত্রে অল্প ঘি নিয়ে এই পুরো মাখাটা একটা পাত্রে ঘি মাখিয়ে তার উপরে চাপিয়ে দিন। তারপর চৌকো করে বা যেকোনো পছন্দ মতন সেপে কেটে রাখুন ।এরপর একটা কড়াইয়ে ঘি দিন তারপর এই কেটে রাখা ছানার আকৃতি গুলো নিয়ে ভেজে ফেলুন ছানার কোফতা।

 এরপর একটা কড়াইয়ে দু চামচ তেল আর এক চামচ ঘি দিন ।তারপর তার মধ্যে ফোড়ন হিসেবে দিন তেজপাতা, জিরে গুঁড়ো, দারচিনি ,ছোট এলাচ ও লবঙ্গ ।ফোড়ন হয়ে গেলে এর মধ্যে টমেটো পিউরি দিয়ে অল্প করে নুন দিয়ে দিন। তারপর এক এক করে দই ,আদা বাটা, হলুদ গুঁড়ো, কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে এটাকে কষান। তারপর কাজু বাদাম বাটা ও অল্প পরিমাণে চিনি দিয়ে এটাকে 3-4 মিনিট রাখুন। এরপর অল্প গরম জল দিন। এই পুরো গ্রেভি টা যখন ফুটতে শুরু করবে তখন আস্তে আস্তে সাবধানে কোফতা গুলো এক এক করে দিন ও খুব কম আঁচে দু থেকে তিন মিনিট বসিয়ে রাখুন ।নামানোর আগে ওপর থেকে ঘি এবং গরম মশলা দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন ছানার কালিয়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here