বাংলার গর্ব প্রচার না করে স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় জোর দেওয়া হোক…

0
182

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ করোনা আবহে রাজ্যজুড়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। মারণ ভাইরাসের থাবায় প্রাণ হারিয়েছেন বহু মানুষ। মুখ্যমন্ত্রী বারংবার রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিকাঠামো নিয়ে ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। অথচ ইছাপুরের বাসিন্দা বছর ১৮-র শুভ্রজিত চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যু বা বছর ২৬ -এর জয়নগরের বাসিন্দা অশোক রুইদাসের মৃত্যু কিংবা বনগাঁ হাসপাতালে প্রৌঢ়ের মৃত্যু এরকম একের পর এক অমানবিক ঘটনা ফের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে। ফলে মঙ্গলবার রাজ্যের বেহাল স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সংক্রান্ত অসংখ্য অভিযোগ নিয়ে স্বাস্থ্য ভবন অভিযান করে রাজ্য বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পল সহ মহিলা মোর্চার অন্যান্য সদস্যরা। এদিন তিনি সল্টলেকে স্বাস্থ্য ভবনে গিয়ে রাজ্যের মুখ্য স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডাঃ অজয় চক্রবর্তীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

এরপর স্বাস্থ্য ভবন থেকে বাইরে বেরিয়ে এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে অগ্নিমিত্রা জানান, স্বাস্থ্য অধিকর্তার কাছে রাজ্যের এবং কলকাতার স্বাস্থ্য ব্যবস্থার বেহাল দশার চিত্র তুলে ধরা হয়েছে এবং সেই সঙ্গে কাজ করার কিছু ধারণা দিয়েছি। এছাড়াও তিনি আরো বলেন, করোনার হাসপাতাল গুলিতে কতগুলি শয্যা ফাঁকা রয়েছে তার কোনো উল্লেখ নেই।  তাই সেক্ষেত্রে যদি ওয়েবসাইটে সেই বিষয়টি উল্লেখ করা থাকে তাহলে সাধারণ মানুষের অত্যন্ত সুবিধা হবে। ফলে হাসপাতালে ঘুরে ঘুরে কাউকেই মারা যেতে হবে না। তবে এই প্রসঙ্গে মুখ্য স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডাঃ অজয় চক্রবর্তী বলেন, ওয়েবসাইটে‌ একটি টোল ফ্রি নম্বর দেওয়া রয়েছে। যেখানে ফোন করলে জানা যাবে কোন হাসপাতালে কত গুলি শয্যা ফাঁকা রয়েছে এবং সেই হাসপাতাল ভর্তি নেবে কিনা। তবে এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে পাল্টা মহিলা মোর্চার সভানেত্রী বলেন, সাধারণ মানুষেরা অনেকেই এই বিষয়ে অবগত নন। তাই সেই টোল ফ্রি নম্বর জনসমক্ষে তুলে ধরা হোক। যেখানে ‘বাংলার গর্ব মমতা’ এত প্রচার করা হচ্ছে, সেই মতো বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে হোক বা সংবাদমাধ্যমের দ্বারা নম্বরটি সকলকে জানানো হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here