সর্বদলীয় বৈঠক কে দিদির পাঠশালা বলে কটাক্ষ দিলীপের

0
102

নিজস্ব প্রতিনিধি, ২৪ জুনঃ রাজ্য বিজেপির দ্বিতীয় ভার্চুয়াল সভা হয় বুধবার। দিল্লি পার্টি অফিসে বাংলার জন্য এই ভারচুয়াল সভা মঞ্চে প্রধান বক্তা হিসেবে ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সাংসদ ভূপেন্দ্র যাদব। ভূপেন্দ্র যাদবের বক্তব্য, “বাংলায় বদলের সময় এসে গিয়েছে। বাংলায় উন্নয়ন করতে বিজেপিকে দরকার। সেই পরিবর্তন আসতে চলেছে। করোনা-আমফান পরিস্থিতিতেও তৃণমূল রাজনীতি করেছে। গরিব বিরোধী এই তৃণমূল সরকারকে হঠানোর সময় এসে গিয়েছে।” “বিজেপি বাঙালির পার্টি নয়”, এই তকমা ঘোচাতে আসরে নামলেন দিলীপ ঘোষ। দিলীপের দাবি, “যারা বলে বিজেপি বাঙালির পার্টি নয় তাদের বলছি, তোমাদের জন্মের আগে থেকে আমরা বাংলা ভাষার সেবা করে আসছি। বাংলার জন্য কোনও পার্টি যদি কাজ করে থাকে সেটা হচ্ছে শ্যামাপ্রসাদের জনসংঘ।” দিলীপ ঘোষ বলেন, “পশ্চিমবঙ্গের সীমানা সুরক্ষিত নয়। সীমানা পেরিয়ে ঢুকছে অনুপ্রবেশকারীরা।” তাঁর অভিযোগ, “বেআইনিভাবে অনুপ্রবেশকারী, রোহিঙ্গারা ঢুকছে। রাজ্যে উগ্রপন্থী কার্যকলাপ বাড়ছে।” পাশাপাশি তাঁর দাবি, ২০২১ সালে বিজেপির হাত ধরে রাজ্যে পরিবর্তন হবেই।

পাশাপাশি, বিজেপি রাজ্য সভাপতিকে কটাক্ষের সুরে বলতে শোনা যায়, “দিদিমণির পাঠশালা দেখতে যাচ্ছি। পার্লামেন্টেও গিয়েছিলাম। বিধানসভাতেও গিয়েছি। এটা আর নতূন কী? দিদিমণির পাঠশালায় ডেকেছে, যাবও।” দিলীপ ঘোষ বলেন, “নানারকম দুর্নীতি হয়েছে। তৃণমূলের আত্মীয়া টাকা পেয়েছেন। আমরা বিডিও অফিস থেকে তালিকা জোগাড় করার চেষ্টা করেছি সব। আমাদের কর্মীরা ত্রাণ দিতে গিয়ে বার বার আক্রান্ত হচ্ছে সেইসব নিয়ে বলব।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here