ভাদ্র সংক্রান্তিতে পালিত বাঙালির নিজস্ব উত্‍সব রান্না পুজো…..

0
246

নিজস্ব প্রতিবেদন (মৌটুসি রায়)১৬/৯/২০: বাংলা ক্যালেন্ডারে শ্রাবণের পরেই ভাদ্র মাস। হিন্দু মতে শ্রাবণ মাসটাকে

শিবের মাস বলা হয়ে থাকে। গোটা শ্রাবণ মাসজুড়েই শিবের মাথায় জল

ঢালার রীতি প্রচলিত। কিন্তু এই এত জল ঢালায় নদী-নালা-পুকুরে

যেমন জল উপচে এল, তেমনি প্রাদুর্ভাব বাড়ল তাদেরও, গ্রামেগঞ্জে সন্ধের

পর যাদের ‘লতা’ বলে। গ্রাম বাংলায় গৃহস্থের ঘরে শিব-কন্যা

লক্ষ্মী-সরস্বতীর মতো মনসার আদরও কম নয়।

সাপের সঙ্গেই প্রায় ঘর

করতে হয় গ্রামগঞ্জের মানুষকে। তাই শহরে খুব একটা না হলেও গ্রাম

বাংলায় মনসা পুজোর কদর যথেষ্ট।

বিশ্বকর্মা পুজোর আগের দিন সাধারণত অমাবস্যার অন্ধকারই থাকে। সেই

ঘোর অন্ধকারে বাড়ির সবাইকে জুটিয়ে সারা রাত ধরে কুটনো, বাটনা,

রান্না। আর পর দিন মা মনসাকে নিবেদন করে তবে খাওয়া। এর পর

যা কিছু উৎসব সবই হবে মহালয়ার পর থেকে, সুপর্বে। যে জন্য দেবী

দুর্গার অন্যতম নাম ‘সুপর্বা’। রান্নাপুজোয় বিভিন্ন আয়োজন এর মধ্যে,

ছোলা-নারকেল দিয়ে কালো কচুর শাক এবং একই সঙ্গে আরও এক পদ

ইলিশের মাথা দিয়ে। নানা রকম সব্জি ভাজা, বিশেষত গাটি কচু, শোলা

কচু আর চিংড়ি-ইলিশ থাকতেই হবে। খেসারির ডাল বেটে শুকনো ঝুরি,

মালপোয়াও থাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here