পণের দাবিতে বধূকে পুড়িয়ে মারল পরিবার

0
197

ছয় বছর আগে একই এলাকার মিঠুন মণ্ডলের সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে হয় মৃত বিন্দির। বিয়ের পর থেকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন বাপেরবড়ি থেকে টাকা আনার চাপ দিতে থাকে ৷ বছর তিনেক আগে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন বিন্দি ৷ এরপর থেকেই নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যায়। রোজই ছোট বড় নানা কারণে শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন করত বলে জানা গিয়েছে। গত শুক্রবার নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যায়। হাত বেঁধে গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here