জেনে নিন ডিমেনশিয়া কমানোর উপায় গুলি …

0
243

জেনে নিন ডিমেনশিয়া কমানোর উপায় গুলি …

সংবাদটিভি ওয়েবপেজ…

ডিমেনশিয়া হলো কিছু উপসর্গের সমন্বয়, মস্তিষ্কের সেল ড্যামেজ, যা সাধারণভাবে মানুষের মানসিক কার্যক্ষমতা কমিয়ে ফেলে এবং স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত করে। স্মৃতিভ্রংশতা হলো এর প্রধান শনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য। তবে স্মৃতিভ্রংশতা অনেক কারণেই হতে পারে, কিন্তু তা ডিমেনশিয়া নাও হতে পারে।

কারণ: ডিমেনশিয়া হলে মস্তিষ্কের সেল ড্যামেজ হয়। আমাদের মস্তিষ্কে নানা রকম সেল নানা কাজে নিয়োজিত। যেসব সেল ড্যামেজ হয়, সেসব স্বাভাবিকভাবে কাজ করতে পারে না। যেমন নড়াচড়া, বিচারক্ষমতা, মনে রাখার মতো কাজ স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় করা সম্ভব হয় না।

কেমন করে বুঝবেন?

মনে রাখতে না পারাটা যদিও ডিমেনশিয়া রোগের শনাক্তকরণ বৈশিষ্ট্য, তবুও অন্য সিম্পটম থাকতে হবে। যেমন যোগাযোগ ও ভাষার ব্যবহারে অস্বাভাবিকতা, মনোসংযোগ করতে না পারা, যৌক্তিক বিচার বোধ হারিয়ে ফেলা। সিম্পটমগুলো ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। একবার ব্রেন সেল ডেথ হলে তা স্থায়ী হয়।

তেমন কোনো সিঙ্গেল টেস্ট করে রোগ নির্ণয় করা যায় না। রোগের ইতিহাস, অন্যান্য রোগ আলাদাকরণ, প্রতিদিনের কাজ পর্যবেক্ষণ করে ডিমেনশিয়া শনাক্ত করা হয়। সে অর্থে এর কোনো চিকিৎসা নেই। তবে সিম্পটম অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হয়।

সচেতনতা

আপনার বয়স ৩০ হলে নিয়ম করে কোলেস্টেরল, ব্লাড সুগার, উচ্চরক্তচাপ চেক করুন। ডাক্তারি পরামর্শ নিন। যদি থাকে তবে নিয়ন্ত্রণ করুন।

প্রতিদিনই হালকা ব্যয়াম করুন। সুইমিং, সাইক্লিং বা জগিংয়ের চেষ্টা করুন।

ব্যালান্স ডায়েট গ্রহণ করুন। সবুজ শাকসবজি, সামুদ্রিক মাছ, ফল, বাদাম আপনার খাবার তালিকায় রাখুন।

বাড়িতে যা করতে পারেন

প্রতিদিন নিয়ম করে অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটার অভ্যাস করতে হবে।

স্ট্রেচিং: দিনে অন্তত একবার হাত, পা ও শরীরের স্ট্রেচিং করতে হবে। যেমন পায়ের গোড়ালির ওপর দাঁড়ালে পায়ের পেছনের মাংশপেশির স্ট্রেচিং হয়, একইভাবে কোমরে হাত দিয়ে পুরো শরীরটাকে একবার ডানে, একবার বামে নিয়ে স্ট্রেচিং করা যেতে পারে।

স্কোয়াটিং: হাঁটুর ওপর ভর করে অর্ধবসা হলো স্কোয়াটিং। প্রথমে একটি চেয়ার নিয়ে বসুন। হাঁটুতে ভর দিয়ে উঠে দাঁড়ান। এরপর চেয়ার সরিয়ে অর্ধবসা অবস্থানে কয়েক সেকেন্ড থেকে আবার সোজা হয়ে দাঁড়ান।

প্রতিটি ব্যায়াম ১০ বার করে দিনে অন্তত একবার করতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here